1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : Sports Zone : Sports Zone
মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ১২:৩০ পূর্বাহ্ন

রুটের ব্যাটে ইংল্যান্ডের লিড

  • আপডেট সময় রবিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২১
  • ৬৩ বার পড়া হয়েছে

একটা সময় মনে হচ্ছিল অনেক বড় লিড নেবে ইংল্যান্ড। তবে তৃতীয় সেশনে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে উল্টো এগিয়ে থাকার আশা জাগায় ভারত। তা সম্ভব হয়নি জো রু্টের জন্য। রেকর্ড গড়ার দিনে আবারও স্বাগতিকদের ত্রাতা অধিনায়ক। তার চমৎকার সেঞ্চুরিতে লর্ডস টেস্টে লিড নিয়েছে ইংল্যান্ড।

তৃতীয় দিন শনিবার শেষ বেলায় ৩৯১ রানে গুটিয়ে গেছে ইংলিশদের প্রথম ইনিংস। ভারতকে আগের দিন ৩৬৪ রানে থামিয়ে দেওয়া দলটি এগিয়ে আছে ২৭ রানে।

এতে সবচেয়ে বড় অবদান ব্যাট হাতে দুর্দান্ত সময় কাটনো রুটের। ক্যারিয়ারে প্রথমবার টানা দুই টেস্টে সেঞ্চুরি পেলেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ইংল্যান্ডের প্রথম অধিনায়ক হিসেবে এক বছরে করলেন পাঁচটি সেঞ্চুরি।

আগের দিন রুট যখন ক্রিজে এসেছিলেন, দল তখন চাপে। মোহাম্মদ সিরাজের হ্যাটট্রিক ঠেকিয়ে দেওয়ার পর থেকে অধিনায়কোচিত ইনিংসে টেনেছেন দলকে। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে গেছেন ১৮০ রানে। এই রান করার পথে অভিষেকের পর থেকে সবচেয়ে কম দিনে ৯ হাজার রানের মাইলফলক ছোয়ার রেকর্ড গড়েছেন।

তার অর্জনের দিনটিকে ইংল্যান্ডের জন্য আরও ভালো হতে দেননি সিরাজ ও ইশান্ত। শেষ সেশনে তাদের হাত ধরেই ঘুরে দাঁড়ায় ভারত। লিড হতে দেয়নি বড়। ৯৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে সফরকারীদের সফলতম বোলার সিরাজ। টেস্টে ফেরার ম্যাচে ইশান্ত ৩ উইকেট নেন ৬৯ রানে।

৩ উইকেটে ১১৯ রানে দিন শুরু করা ইংল্যান্ড এগিয়ে যায় রুট ও জনি বেয়ারস্টোর ব্যাটে। প্রথম সেশনে দুই ব্যাটসম্যান যোগ করেন ৯৭ রান। জুটিতে অগ্রণী ছিলেন বেয়ারস্টো, তার ফিফটি আসে ৯০ বলে। এর আগে ৮২ বলে ফিফটিতে পৌঁছান রুট।

উইকেটে এ দিন বোলারদের জন্য ততটা সহায়তা ছিল না। পুরান বলে ব্যাটসম্যানদের খুব একটা ভাবাতে পারছিলেন না বোলাররা। অনেকটা খেলার ধারার বিপরীতেই আসে উইকেট। শরীর তাক করে আসা সিরাজের শর্ট বল ঠিক মতো পুল করতে পারেননি বেয়ারস্টো। স্লিপে সহজ ক্যাচ মুঠোয় জমান বিরাট কোহলি। ভাঙে ১২১ রানের জুটি।

৭ চারে ১০৭ বলে ৫৭ রান করেন বেয়ারস্টো।

শুরুতে একটু নড়বড়ে হলেও থিতু হয়ে গিয়েছিলেন জস বাটলার। তার সঙ্গে জমে গিয়েছিল রুটের জুটি। ইশান্তের ইনসুইঙ্গারে বোল্ড হয়ে ২৩ রানে থামেন বাটলার। ভাঙে ৫৪ রানের জুটি। এই জুটির পথেই ক্যারিয়ারের ২২তম সেঞ্চুরিতে পৌঁছান ইংলিশ অধিনায়ক।
সাবলীলভাবে এগিয়ে যাচ্ছিলেন রুট। মইন আলি ছিলেন বেশ সাবধানী। তাদের আরেকটি পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটিতে মিলেছিল বড় লিডের আভাস। কিন্তু পরপর দুই বলে মইন ও স্যাম কারানকে ফিরিয়ে মোড় ঘুরিয়ে দেন ইশান্ত।

অলিভার রবিনসনকে দ্রুত ফিরিয়ে ভারতের লিডেরও সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন সিরাজ। কিন্তু মার্ক উড ও জেমস অ্যান্ডারসনকে নিয়ে দলকে চারশ রানের কাছে নিয়ে যান রুট।

উড ফিরেন ৫ রান করে। শূন্য রানে জেমস অ্যান্ডারসনকে বোল্ড করে ইংল্যান্ডকে ৩৯১ রানে থামিয়ে দেন মোহাম্মদ শামি। স্বাগতিকরা শেষ ৫ উইকেট হারায় কেবল ৫০ রানে।

আশা জাগিয়েও সঙ্গীর অভাবে ডাবল সেঞ্চুরি পাওয়া হয়নি রুটের। তবে ১৮০ রানের ইনিংসে গড় আবার পঞ্চাশে নিয়ে গেলেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত ১ম ইনিংস: ৩৬৪

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ১২৮ ওভারে ৩৯১ (রুট ১৮০*, বেয়ারস্টো ৫৭, বেয়ারস্টো ২৩, বাটলার ২৭, কারান ০, রবিনসন ৬, উড ৫, অ্যান্ডারসন ০; ইশান্ত ২৪-৪-৬৯-৩, বুমরাহ ২৬-৬-৭৯-০, শামি ২৬-৩-৯৫-২, সিরাজ ৩০-৭-৯৪-৪, জাদেজা ২২-১-৪৩-০)।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2021 SportsZonebd
Theme Customized By BreakingNews